গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় বাংলাদেশে ক্ষমতার পালাবদল দেখতে চায় মালয়েশিয়া


আগামীতে সব দলের অংশগ্রহণে নির্বাচনের মাধ্যমে বাংলাদেশে ক্ষমতার পালাবদল দেখতে চায় মালয়েশিয়া। বুধবার (৮ নভেম্বর) বিকেলে মালয়েশিয়ার সংসদীয় প্রতিনিধিদলের সঙ্গে খালেদা জিয়ার বৈঠকের পর বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ কথা জানান। তিনি বলেন, ‘তারা (মালয় সংসদীয় দল) সবাই চান যে বাংলাদেশে সকলের অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত হোক। তারা বার বার বলেছেন, আমরা অপেক্ষা করে আছি যে, বাংলাদেশে একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের মধ্য দিয়ে পিসফুল ট্রান্সফার অব পাওয়ার। শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতার যে পরিবর্তন সেটি দেখার জন্য তারা অপেক্ষা করে আছেন।’ তিনি বলেন, ‘মালয়েশিয়া মনে করে, মালয়েশিয়াতে যে ডেমোক্রেসি প্রাকটিস হচ্ছে সেখানেও তারা অনেক ওডসের মধ্য দিয়ে এসেছেন। এবং তারা এমন অবস্থায় এসেছে সেখানে ডেমোক্রেসি প্রাকটিস হচ্ছে। তারা মনে করেন যে বাংলাদেশেও একইভাবে গণতন্ত্রের চর্চার মধ্য দিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতার যে পালাবদল তা পরিপূর্ণ হবে।’ মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, ‘আলোচনা অত্যন্ত প্রাণবন্ত হয়েছে।’ মালয়েশিয়ার সংসদীয় এই প্রতিনিধি দলে দুজন ছিলেন সরকারি দলের এবং একজন ছিলেন বিরোধী দলের যিনি বিরোধী দলের উপনেতা। গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এই বৈঠকে কমনওয়েল উইমেন পার্লামেন্টারিয়ানের চেয়ারপারসন ড. নূরানিনি আহমেদ ৩ সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন। বৈঠকে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ছাড়াও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য সাবিহউদ্দিন আহমেদ, মালয়েশিয়া বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি মাহবুব আলম শাহ উপস্থিত ছিলেন।