বেগম জিয়া স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে দীর্ঘ সংগ্রাম করেছেন - মির্জা আলমগীর


বেগম খালেদা জিয়া ছাড়া এদেশে কোনো নির্বাচন হবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। রোববার, নভেম্বর ১২, বিকেলে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আয়োজিত জনসভায় দলের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উপস্থিতিতে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন। মির্জা ফখরুল বলেন, জিয়াউর রহমান ৭ নভেম্বর একদলীয় শাসন ব্যবস্থা থেকে বহুদলীয় গণতন্ত্রের সূচনা করেছিলেন। তারই উত্তরসূরী খালেদা জিয়া নয় বছর স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করেছেন। আজকে দখলদার-লুঠেরা সরকারে বিরুদ্ধে সংগ্রাম করে যাচ্ছেন। ‘মিথ্যা মামলা দিয়ে তাকে হয়রানি করা হচ্ছে, জনগণ এর জবাব দেবে। হাজার হাজার কোটি টাকা টাকা লুট করে যারা বিদেশে পাচার করছে তাদেরও জবাব দিতে হবে। খালেদা জিয়া ছাড়া কোনো নির্বাচন এদেশে হবে না।‘ বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সভাপতিত্বে জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দেবেন দলটির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। সভামঞ্চে আছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, মির্জা আব্বাস, ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, নজরুল ইসলাম খান, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, ভাইস চেয়ারম্যান মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন, আবদুল্লাহ আল নোমান প্রমুখ। রাজধানীসহ ঢাকার আশপাশের বিভিন্ন জেলা থেকে নেতাকর্মীরা জনসভায় যোগ দিতে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আসতে থাকেন সেই সকাল থেকেই। সকাল সোয়া ১১টা থেকে মঞ্চে জাসাসের শিল্পীরা সংগীত পরিবেশন করেন। ৭ নভেম্বর বিএনপির ‘বিপ্লব ও সংহতি দিবস’ থাকলেও ঢাকায় কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি অ্যাসোসিয়েশনের (সিপিএ) সম্মেলন হওয়ায় পিছিয়ে রোববার এ জনসভা করছে বিএনপি।